1. admin@voiceofnaogaon.com : admin :
ভিজিএফ চাল বিতরণে অনিয়ম, জনপ্রতি দেড় কেজি করে চাল কম - ভয়স অফ নওগাঁ
মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ১২:০৫ অপরাহ্ন
প্রধান খবর
ঈদের শুভেচ্ছা ও সতর্কতা জানিয়েছেন জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার শাহ্ ইফতেখার আহমেদ আহমেদ পিপিএম (বার) নবনির্বাচিত ভাইস-চেয়ারম্যান পপি’র বিরুদ্ধে অপপ্রচার নওগাঁ ব্লাড সার্কেলের বিশ্ব রক্তদাতা দিবস উদযাপন রির্জাভের গাছ চোরকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ কুষ্টিয়া শহরের পুরাতন আলফা মোড় এলাকায় সন্ত্রাসী হামলায় একজন গুরুতর আহত সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি নওগাঁয় নেশাগ্রস্ত হয়ে বাড়ি ফেরায় ছেলের লাঠির আঘাতে প্রাণ গেলো বাবার কারিতাসের উদ্যোগে শিশুদের অধিকার ও সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য মিডিয়া এ্যাডভোকেসী ৪০ শতাংশ জমিতে ওলকচু চাষ করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন কৃষক আবু বক্কর সিদ্দিক বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের জেসিএমএস বিভাগের শিক্ষার্থীদের ইন্টার্নশিপ সমাপনী প্রেজেন্টেশন অনুষ্ঠিত শেখ হাসিনা’র কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে স্বেচ্ছাসেবক লীগের আলোচনা সভা, দোয়া, মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত

ভিজিএফ চাল বিতরণে অনিয়ম, জনপ্রতি দেড় কেজি করে চাল কম

  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ৯ এপ্রিল, ২০২৪

বদলগাছী- নওগাঁ প্রতিনিধি:

নওগাঁর বদলগাছীতে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ভিজিএফের চাল বিতরণে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার  (৯ এপ্রিল) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে চাল বিতরণে এ অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া যায়।

জানা গেছে, চাল বিতরণকালে পরিষদে উপস্থিত ছিলেন ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মাসুদ রানা ও ট্যাগ অফিসার সন্ধা রানী। তাদের উপস্থিতিতেই প্রত্যেক উপকারভোগীকে দেড় কেজি করে চাল কম দিয়ে বিতরণ করা হয়েছে।

এমনকি চালের ওজন মাপার জন্য ডিজিটাল স্কেল মেশিন ব্যবহার করা হয়নি। একটি বালতিতে করে মনগড়াভাবে চাল বিতরণ করা হয়।

একাধিক উপকারভোগী জানান, প্রত্যেক দরিদ্র উপকারভোগীকে ১০ কেজি করে চাল দেওয়া কথা থাকলেও সাড়ে ৮ কেজি করে দেওয়া হয়েছে। বালতিতে মেপে চাল দিয়েছে।

পরে মেপে দেখা যায়, প্রত্যেকেই চাল কম দেওয়া হয়েছে। ঐ ইউনিয়নের কয়েকজন উপকারভোগী বলেন, আমাদের ১০ কেজির জায়গায় ৮ কেজি ২০০ গ্রাম চাল দিয়েছে। যেখানে এক কেজি ৮০০ গ্রাম চাল নেই। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বয়স্ক চাচা বলেন,আমি প্রতিবাদ করেছি চাল কম দেওয়ার জন্য। কারো কোন কথা শুনছে না চেয়ারম্যান। নাম জানতে চাইলে তিনি বলেন,নাম আমি বলবো না।আমার সাথে চেয়ারম্যানের কাছে চলেন।

সংশ্লিষ্ট ট্যাগ অফিসার সন্ধা রানী বলেন, আমি চাল বিতরনের সময় উপস্থিত ছিলাম। আপনি উপস্থিত থেকে এক কেজি ৮০০ গ্রাম চাল কম দেওয়ার কারন কি? আমি যতক্ষণ ছিলাম সঠিকভাবে দেওয়া হয়েছে। কতক্ষণ ছিলেন ঐ পরিষদে। জবাবে বলেন আমি এখন অফিসে।

দুপুরে মথুরাপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো: মাসুদ রানা র মুঠোফোনে বারবার ফোন দিয়ে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলেও +8801711932293 সংযোগ টি বন্ধ পাওয়া গেছে।

একই চিত্র মিঠাপুর ইউনিয়নে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া যায়। সেখানেও প্রত্যেক উপকারভোগীকে এক থেকে দেড় কেজি করে চাল কম দেওয়া হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (অ: দা:) মো: কামরুল হাসান সোহাগ বলেন, আমি আপনার মাধ্যমেই জানতে পারলাম চাল কম দেওয়ার কথা। আমি খোঁজ খবর নেয়। প্রয়োজনে তদন্ত করে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় নিবন্ধনের প্রক্রিয়াধীন।
Powered by: Nfly IT