1. admin@voiceofnaogaon.com : admin :
ঈদুল ফিতর: ইসলামের আলোকে যেভাবে উদযাপন করব, মুফতি খলীল আহমদ কাসেমী। - ভয়স অফ নওগাঁ
সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৩:৪৪ পূর্বাহ্ন
প্রধান খবর
ঈদের শুভেচ্ছা ও সতর্কতা জানিয়েছেন জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার শাহ্ ইফতেখার আহমেদ আহমেদ পিপিএম (বার) নবনির্বাচিত ভাইস-চেয়ারম্যান পপি’র বিরুদ্ধে অপপ্রচার নওগাঁ ব্লাড সার্কেলের বিশ্ব রক্তদাতা দিবস উদযাপন রির্জাভের গাছ চোরকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ কুষ্টিয়া শহরের পুরাতন আলফা মোড় এলাকায় সন্ত্রাসী হামলায় একজন গুরুতর আহত সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি নওগাঁয় নেশাগ্রস্ত হয়ে বাড়ি ফেরায় ছেলের লাঠির আঘাতে প্রাণ গেলো বাবার কারিতাসের উদ্যোগে শিশুদের অধিকার ও সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য মিডিয়া এ্যাডভোকেসী ৪০ শতাংশ জমিতে ওলকচু চাষ করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন কৃষক আবু বক্কর সিদ্দিক বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের জেসিএমএস বিভাগের শিক্ষার্থীদের ইন্টার্নশিপ সমাপনী প্রেজেন্টেশন অনুষ্ঠিত শেখ হাসিনা’র কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে স্বেচ্ছাসেবক লীগের আলোচনা সভা, দোয়া, মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত

ঈদুল ফিতর: ইসলামের আলোকে যেভাবে উদযাপন করব, মুফতি খলীল আহমদ কাসেমী।

  • প্রকাশিত: মঙ্গলবার, ৯ এপ্রিল, ২০২৪

মোঃ আবু তৈয়ব,চট্টগ্রাম জেলা প্রতিনিধি : 

ঈদুল ফিতর’ কথাটি আরবি। ‘ঈদ’ মানে আনন্দ–উৎসব; যা বারবার ফিরে আসে প্রতিবছর। রমজানের রোজার শেষে এ ঈদ আসে বলে এর নাম ‘ঈদুল ফিতর’। বাংলায় আমরা বলি রোজার ঈদ। মুসলিম মিল্লাতের দুটি ঈদের একটি ঈদুল ফিতর। সুতরাং ঈদুল ফিতর বিশ্ব মুসলিমের জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মহা উৎসবঈদ শব্দ দ্বারা এ দিবসের নাম রাখার তাৎপর্য হলো আল্লাহ রাব্বুল আলামিন এ দিবসে তাঁর বান্দাদেরকে নিয়ামাত ও অনুগ্রহ দ্বারা বারবার ধন্য করেন ও তাঁর দয়ার দৃষ্টি দান করেন।

ইসলামি শরীয়তে ঈদের প্রচলন
“”””””””””””””””””””””””””
আল্লাহ রাববুল আলামিন মুমিন মুসলমানদের প্রতি নিয়ামাত হিসেবে ঈদ দান করেছেন। রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম মদিনা শরীফ হিজরতের পর প্রথম হিজরীতেই শুরু হয় ঈদ । পূর্বেকার নবীদের সময় ঈদের প্রচলন ছিল না।

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মক্কা শরীফ হতে হিজরত করে যখন মদিনা শরীফ পৌঁছলেন তখন মদিনাবাসীরা নওরোজ’ ও ‘মেহেরজান’ নামে দু’টি আনন্দ দিবস উদযাপন করতে দেখলেন, যে দিবসগুলোতে তারা শুধু খেলাধুলা, আমোদ-ফুর্তি করে। হযরত আনাস রাদি আল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম জিজ্ঞেস করলেন এ দু’দিনের কী তাৎপর্য আছে? মদিনাবাসীগণ উত্তর দিলেন- আমরা জাহেলী যুগে এ দু দিনে খেলাধুলা করতাম। তখন তিনি বললেন : ‘আল্লাহ রাববুল আলামিন এ দু দিনের পরিবর্তে তোমাদের এর চেয়ে শ্রেষ্ঠ দু’টো দিন দিয়েছেন। তা হল ঈদুল আদ্বহা ও ঈদুল ফিতর।’ (সুনান আবূ দাউদ- ১১৩৪)।

হাদিস শরীফের আলোকে এটাই প্রতিয়মান হয় যে ঈদের প্রকৃত অর্থ শুধু দামী, রঙ্গিন জামা, হরেক রকম মুখরোচক খাবার আর নানা ধরণের খেলাধুলা এবং আনন্দ-উৎসবের নাম-ই ঈদ নয়। ধনী গরীবের এক কাতারে নামাজে দাড়ানো শুধু ঈদ নয় বরং তাদের মধ্যে বৈষম্য কমিয়ে আনাও ঈদের উদ্দেশ্য ঈদের উদ্দেশ্য সম্পর্কে আল্লাহ তা’আলা ইরশাদ করেন-

“আর যেন তোমরা নির্ধারিত সংখ্যা পূরণ করতে পার এবং তোমাদেরকে যে সুপথ দেখিয়েছেন, তার জন্যে তোমরা আল্লাহর মমত্ব-বড়ত্ব প্রকাশ কর এবং তাঁর কৃতজ্ঞ হও।” (সূরা বাকারা- ১৮৫)।

এই আয়াত থেকে প্রমাণিত হচ্ছে, ঈদের উদ্দেশ্য হল- (১) আল্লাহর বড়ত্ব মহত্ব ও শ্রেষ্ঠত্ব ঘোষণা করা। (২) আল্লাহ যে নেয়ামত দান করেছেন তার জন্য আল্লাহর কৃতজ্ঞতা আদায় করা।

আমাদেরকে আল্লাহর বিধান এবং রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সুন্নত অনুসরণে ঈদ উদযাপন করতে হবে। ঈদুল ফিতরে নবী সা. আমাদের জন্য কি কর্মসুচি দিয়েছেন সেটা আমাদেরকে জানতে হবে। কারণ, ঈদ আমাদের জন্য এক বিরাট নিয়ামাত। এ দিনে অনেক কাজ আছে যার মাধ্যমে আমরা আল্লাহ তায়ালার নিকটবর্তী হতে পারি এবং ঈদ উদযাপনও একটি ইবাদাতে পরিণত হতে পারে।

ঈদের দিনে শুভেচ্ছা বিনিময়ের ভাষা
———————–
একে অপরকে শুভেচ্ছা জানানো, অভিবাদন জানানো মানুষের সুন্দর চরিত্রের একটি দিক। এতে খারাপ কিছু নেই; বরং এর মাধ্যমে একে অপরের জন্য কল্যাণ কামনা ও দোয়া করা হয়। পরস্পরের মাঝে বন্ধুত্ব ও আন্তরিকতা বৃদ্ধি পায়।

ঈদ উপলক্ষে পরস্পরকে শুভেচ্ছা জানানো শরিয়ত অনুমোদিত একটি বিষয়। বিভিন্ন বাক্য দ্বারা এ শুভেচ্ছা বিনিময় করা যায়। যেমন-

(ক) হাফেজ ইবনে হাজার রহ. বলেন ‘যুবাইর ইবনে নফীর থেকে বিশুদ্ধ সূত্রে বর্ণিত, রাসূলে কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর সময় সাহাবায়ে কেরাম ঈদের দিন সাক্ষাৎকালে একে অপরকে বলতেন, تَقَبَّلَ اللهُ مِنَّا وَمِنْكَم (তাকাব্বালাল্লাহু মিন্না ওয়া মিনকুম)। অর্থ আল্লাহ তা‘আলা আমাদের ও আপনার ভালো কাজগুলো কবুল করুন। (ফাতহুল বারী শরহু সহীহিল বুখারী ৬/২৩৯, আসসুনানুল কুবরা লিলবাইহাকী, হাদীস- ৬৫২১)।

(খ) প্রতি বছরই আপনারা সুখে থাকুন, ) كل عام وانتم بخير কুল্লা আমিন ওয়া আনতুম বিখাইর ( বলা যায়।

এ ধরনের সকল মার্জিত বাক্য দ্বারা শুভেচ্ছা বিনিময় করা যায়। তবে প্রথমোক্ত বাক্য تَقَبَّلَ اللهُ مِنَّا وَمِنْكَم দ্বারা শুভেচ্ছা বিনিময় করা উত্তম। কারণ সাহাবায়ে কিরাম রা. এবং তাবিয়ীনে কেরাম ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়ে এ বাক্য ব্যবহার করতেন। এতে পরস্পরের জন্য আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের নিকট দোয়া-প্রার্থানা রয়েছে। ঈদের দিনে ঈদ মোবারক বলে শুভকামনা প্রকাশ করা যদিও বিধিসম্মত কিন্তু তা আজ প্রথাসর্বস্ব রীতির রূপ পরিগ্রহ করেছে। অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় সালামের পরিবর্তে প্রচলিত এ সম্ভাষণটি ব্যবহার করা হয়। অথচ সাক্ষাৎ হলে প্রথমে সালাম করবে। তারপর অন্য সম্বোধন। তাই তাকাব্বালাল্লাহু মিন্না ওয়া মিনকুম কেই ঈদের দিনের সম্ভাষণ রীতি হিসেবে গ্রহণ করা সুন্নাহসম্মত পদ্ধতি। তবে ঈদুল ফিতরের সম্ভাষণ প্রাপ্তির শ্রেষ্ঠ উপযুক্ত ব্যক্তি তো তাঁরাই যাঁরা রমাযানুল মুবারাকে রোযা রেখেছে। পবিত্র কুরআনের দিকনির্দেশনা থেকে বেশি বেশি উপকৃত হয়েছে। তাকওয়া ও খোদাভীতির দীক্ষা গ্রহণ করে পুরো বছর দীনের উপর অবিচল থাকার অঙ্গীকার গ্রহণ করেছে।

ঈদের দিনের সুন্নাহসম্মত আমল
———————-
১. ঈদের দিন গোসল করা, পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অর্জন করা ও সুগন্ধি ব্যবহার করা

ঈদের দিন গোসল করার মাধ্যমে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অর্জন করা মুস্তাহাব। কারণ এ দিনে সকল মানুষ নামায আদায়ের জন্য মিলিত হয়। ইবনে উমর রা. থেকে বিশুদ্ধ সূত্রে বর্ণিত, তিনি ঈদুল-ফিতরের দিনে ঈদগাহে যাওয়ার পূর্বে গোসল করতেন। (মুআত্তা ইমাম মালেক ১/১৭৭)।

সায়ীদ ইবনে মুসাইয়াব রহ. বলেন, ঈদুল ফিতরের সুন্নত তিনটি-
১। ঈদগাহে পায়ে হেঁটে যাওয়া।
২। ঈদগাহের দিকে যাত্রা করার পূর্বে কিছু আহার করা।
৩। গোসল করা। (ইরওয়াউল গালীল ৩/১০৭)।
তদ্রূপ সুগন্ধি ব্যবহার করা ও উত্তম পোশাক পরিধান করাও মুস্তাহাব।

ইবনে উমর রা. থেকে বিশুদ্ধ সনদে বর্ণিত,তিনি দু’ঈদের দিনে সর্বোত্তম পোশাক পরিধান করতেন। (ফাতহুল বারী- ২/৫১০)।

ইমাম মালেক রহ. বলেন, আমি উলামায়ে কেরামের কাছ থেকে শুনেছি, তারা প্রত্যেক ঈদে সুগন্ধি ব্যবহার ও সাজসজ্জাকে মুস্তাহাব বল

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় নিবন্ধনের প্রক্রিয়াধীন।
Powered by: Nfly IT