1. admin@voiceofnaogaon.com : admin :
আত্রাই দাখিল মাদ্রাসায় নিরাপত্তা কর্মী পদে চাকুরী দিতে চেয়ে ৫ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা আত্মসাৎ - ভয়স অফ নওগাঁ
মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ১১:৪৭ পূর্বাহ্ন
প্রধান খবর
ঈদের শুভেচ্ছা ও সতর্কতা জানিয়েছেন জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার শাহ্ ইফতেখার আহমেদ আহমেদ পিপিএম (বার) নবনির্বাচিত ভাইস-চেয়ারম্যান পপি’র বিরুদ্ধে অপপ্রচার নওগাঁ ব্লাড সার্কেলের বিশ্ব রক্তদাতা দিবস উদযাপন রির্জাভের গাছ চোরকে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগ কুষ্টিয়া শহরের পুরাতন আলফা মোড় এলাকায় সন্ত্রাসী হামলায় একজন গুরুতর আহত সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি নওগাঁয় নেশাগ্রস্ত হয়ে বাড়ি ফেরায় ছেলের লাঠির আঘাতে প্রাণ গেলো বাবার কারিতাসের উদ্যোগে শিশুদের অধিকার ও সুরক্ষা নিশ্চিত করার জন্য মিডিয়া এ্যাডভোকেসী ৪০ শতাংশ জমিতে ওলকচু চাষ করে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন কৃষক আবু বক্কর সিদ্দিক বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের জেসিএমএস বিভাগের শিক্ষার্থীদের ইন্টার্নশিপ সমাপনী প্রেজেন্টেশন অনুষ্ঠিত শেখ হাসিনা’র কারামুক্তি দিবস উপলক্ষে স্বেচ্ছাসেবক লীগের আলোচনা সভা, দোয়া, মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত

আত্রাই দাখিল মাদ্রাসায় নিরাপত্তা কর্মী পদে চাকুরী দিতে চেয়ে ৫ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা আত্মসাৎ

  • প্রকাশিত: বৃহস্পতিবার, ৭ ডিসেম্বর, ২০২৩

মোঃ শিফাত মাহমুদ ফাহিম, বিশেষ প্রতিনিধি:

নওগাঁ জেলার আত্রাই উপজেলার হাটকালুপাড়া ইউনিয়নের নিকটস্থ হাটকালুপাড়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার আবুল হোসেন বিরুদ্ধে মোটা অংকের টাকা আত্মসাৎতের অভিযোগ উঠেছে।

খোঁজ নিয়ে জানাযায়,উক্ত দাখিল মাদ্রাসায় একই (নিরাপত্তাকর্মী) পদে একাধিক জনকে নিয়োগ দিতে চেয়ে সু-কৌশলে তাদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী আলমগীর হোসেন, পিতা মনির উদ্দিন, সাং হাটকালুপাড়া, আত্রাই, নওগাঁ।তিনি বলেন,
হাটকালুপাড়া দাখিল মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ নিরাপত্তাকর্মী শূণ্য পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলে আমি একজন প্রার্থী হিসাবে সেখানে আবেদন করি।

এরপর উক্ত মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল (সুপার) আবুল হোসাইন, উক্ত মাদ্রাসার হিসাব রক্ষক মোঃ নজরুল ইসলাম সহ উক্ত মাদ্রাসার সভাপতি আজাদ হোসেন কবিরাজ।আমাকে ও আমার পরিবারের লোকজনদের ডেকে ১০ লক্ষ টাকার বিনিময়ে উক্ত পদে আমাকে চাকুরী দিবে বলে আমার পরিবারের লোকজনদের সাথে কথা পাঁকাপুক্ত করে।

টাকা সংগ্রহ করার জন্য কিছু দিন সময় দেয় এর মাঝে আমার পরিবারের লোকজন আমাদের গৃহপালিত গরু ও জমি বিক্রি করে উনাদের হাতে নগদ ৩ লক্ষ টাকা বুঝিয়ে দেয়।

একই পদের জন্য আরও অনেকের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেয় বলে আমি জানতে পারি।সেই সাথে আমাকে উক্ত পদে নিয়োগ না দিয়ে অন্য জনকে নিয়োগ দেওয়ার পাঁয়তারা তারা করছে বলে জানতে পারি।

এরপর আমি ও আমার পরিবারের লোকজন আমাদের দেওয়া ৩ লক্ষ টাকা ফেরত চাইতে গেলে তারা আমাদের মিথ্যা মামলা দিয়ে জেল ভাত খাওয়ানোর ভয়-ভীতি দেখায়।সেই সাথে আমাকে প্রাণনাশের হুমকি প্রদান করে।আমি দোষীদের সঠিক বিচার চাই এবং উক্ত পদে যেন আমাকে নিয়োগ দেওয়া হয় আমি সরকারের কাছে এর জন্য আকুল আবেদন করছি।

আরও জানিয়েছেন এ নিয়োগ স্থগিত করে নতুন করে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে তাকে যেন উক্ত পদে নিয়োগ দেওয়া হয়।আরও জানাযায় অন্য দুই প্রার্থীর কাছ থেকে আরও ২ লক্ষ ৭০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয় উক্ত পদে চাকুরী দেবার কথা বলে।

এ বিষয় নিয়ে উক্ত মাদ্রাসার সুপার আবুল হোসেন এর সাথে মুঠোফোনে কথা বলা হলে তিনি এ ঘটনা মিথ্যা বলে দাবি করেন।সেই সাথে বলেন আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে এসব করা হচ্ছে।হয়তো কোন গোষ্ঠী তাদের স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে।

আমি কারো কাছ থেকে নিয়োগ বিষয়ে কোন প্রকার টাকা পয়সা গ্রহণ করিনি।যারা চাকুরীর জন্য আবেদন করেছেন তাদের সবাইকে পরীক্ষার জন্য জানানো হয়েছে সবাই পরীক্ষা দিবে এবং মেধার ভিত্তিতে উক্ত পদে নিয়োগ দেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় নিবন্ধনের প্রক্রিয়াধীন।
Powered by: Nfly IT